ভাবা হচ্ছিল করোনার মহৌষধ, প্রথম পরীক্ষায় ফেল করল…

করো’না রোখার প্রথম পরীক্ষায় উত্তার্ণ হতে পারল না জীবাণুনাশক ড্রা’গ রেমডেসিভির। দুর্ঘ’টনাবশত এ ব্যাপারে কাগজপত্রের খসড়া বার করে ফেলে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। পরে তা সরিয়েও দেয়। খসড়ায় পরিষ্কার, চিনা এই পরীক্ষায় দেখা গিয়েছে, ওই ওষুধ করো’না রোগীর শারীরিক অবস্থার উন্নতি ঘটাতে পারেনি, র’ক্তে প্যাথোজেনের উপস্থিতিও রয়েছে আগের মত।

২৩৭ জন রোগীর ওপর ওই ওষুধ পরীক্ষা হয়। ১৫৮ জনকে ওষুধ দেওয়া হয়, তাঁদের শারীরিক অবস্থার তুলনা করা হয় বাকি ৭৯ জনের সঙ্গে। এক মাস পর দেখা গিয়েছে, রেমডেসিভির ওষুধটি নিয়েছেন এমন ১৩.৯ শতাংশ রোগীর মৃ’ত্যু হয়েছে, বাকি ৭৯ জন রোগীর মধ্যে মৃ’ত্য়ুর গড় ১২.৮ শতাংশ। অর্থাৎ নয়া এই ওষুধ করো’না রোগীদের অবস্থার উন্নতি করতে পারেনি।

যদিও যে মা’র্কিন সংস্থা ওষুধটি তৈরি করেছে, সেই গাইলিড সায়েন্সেসের দাবি, প্রকাশিত খসড়া তাদের গবেষণার সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়। ঠিকমত সময় না দিয়েই পরীক্ষা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে, অ’তএব ওই খসড়া অসম্পূর্ণ বলে অ’ভিযোগ করেছে তারা। তাদের দাবি, অ’সুখ ধ’রা পড়ার প্রথম দিকে যদি রেমডেসিভির দেওয়া যায়, তবে ভাল ফল মিলতে পারে।

রেমডিসিভির মূলত ইবোলার ওষুধ, ধারণা করা হয়েছিল, করো’নার বি’রুদ্ধেও দারুণ কাজে দেবে। জীবাণুর অগ্রগতি ঠে’কাতে পারলে র’ক্তের প্যাথোজেনকেও অনেকটা নিষ্ক্রিয় করা যেত। আ’মেরিকার সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল দাবি করে, করো’না রুখতে এই ওষুধ কার্যকর হতে পারে। কিন্তু কার্যক্ষেত্রে এই ওষুধটি করো’না প্রতিরোধে ব্যর্থ হয়েছে বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।-এবিপি আনন্দ

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*