৩য় শ্রেণির ছা’ত্রীকে র্ষ’ণ চে’ষ্টা, হা’তেনা’তে আ’ট’ক ব’খাটে

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়ায় বুধবার ৩য় শ্রেণির এক ছাত্রীকে শ্লী’তাহা’নীর চেষ্টাকালে আসলাম শেখ নামের এক ব’খাটেকে আ’ট’ক করেছে স্থানীয়রা। সে গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়া ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের চর দৌলতদিয়া পরশউল্লাহ মাতুব্বার পাড়ার শুকুর আলী শেখের ছেলে।

এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে গোয়ালন্দ ঘাট থানায় ‘ধর্ষ’ণচে’ষ্টার ‘মা’ম’লা দায়ের করেছেন।
ওই ছাত্রীর মা জানান, তার মেয়ে চাঁনখান পাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৩য় শ্রেণিতে পড়ে। স্কুল বন্ধ থাকলেও এক শি’ক্ষকের কাছে স্কুলে প্রাইভেট পড়ে। প্রতিদিনের মত বুধবার (১ জুলাই) সকাল ৯টার দিকে তার মেয়ে প্রাইভেট পড়ার জন্য স্কুলে যায়। কিন্তু শিক্ষকের আসতে একটু দেরি হওয়ায় তার মেয়ে অপর দুই সহপাঠীর সাথে

শ্রেণিকক্ষের মধ্যে খেলছিল। এসময় বখাটে আসলাম সেখানে গিয়ে তার মেয়ের দুই সহপাঠীকে কৌশলে শ্রেণিকক্ষ থেকে বের করে দিয়ে তাকে শ্লী’ল’তাহা’নির চেষ্টা করে। তার মেয়ের চিৎকারে স্থানীয়রা এসে বখাটে আসলামকে হা’তেনা’তে আ’ট’ক করে উত্তমমধ্যম দিয়ে ‘পুলিশে সোপর্দ করে।
খবর পেয়ে তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে তার মেয়েকে উ’দ্ধা’র করে নিয়ে গোয়ালন্দ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা করিয়ে থা’নায় মা’ম’লা দায়ের করেন।

স্থানীয়রা জানান, বখাটে আসলাম চাঁ’দখা’র পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সংস্কার কাজে শ্রমিক হিসেবে কয়েকদিন ধরে কাজ করছিল। এর মধ্যে তার ‘কু-ন’জর পড়ে ওই শিশুটির প্রতি।
এ বিষয়ে গোয়ালন্দ ঘাট থানার ওসি আশিকুর রহমান জানান, খবর পেয়ে দ্রুত সময়ের মধ্যে ঘটনাস্থলে গিয়ে ‘পু’লিশ ব’খাটে আসলামকে আটক করে। যেহেতু ধ’র্ষণ’চে’ষ্টা, তাই ওই স্কুলছাত্রীকে মেডিকেল পরীক্ষার প্রয়োজন নেই। আ’ট’ককৃ’ত উক্ত যু’বকের বি’রুদ্ধে মা’ম’লা’ দিয়ে আদালতে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*