কত বড় বিশ্বাসঘা’তকতা! সুশান্তের সবচেয়ে কাছের বন্ধু সন্দীপও শেষ পর্যন্ত এটা করলো!!

সুশান্ত সিং রাজপুতের প্র’য়াণের পর থেকে একের পর এক চা’ঞ্চল্যকর ত’থ্য উঠে আসছে। শনিবারও সামনে এল এক নয়া ত’থ্য। মুম্বাই পুলিশ সুত্রে জানা গিয়েছে এক বার নয় আসলে দু’বার আত্মহ’ত্যা করতে গিয়েছিলেন অভিনেতা। প্রথমবার ব্য’র্থ হন, কিন্তু দ্বিতীয় বার মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন তিনি।

গত ১৪ জুন বান্দ্রায় নিজের ফ্ল্যাটে গলায় ফাঁ’স লাগিয়ে মাত্র ৩৪ বছর বয়সে আত্মহ’ত্যা করেন সুশান্ত সিং রাজপুত। কিন্তু কী কারণে এমন চ’রম পথ বেছে নিলেন তিনি তা এখনও জানতে ম’রিয়া পুলিশ। পরিবার-বন্ধু-ফ্যানেদের মনেও নানা প্রশ্ন। কেন হঠাৎ নিজেকে শেষ করে দিলেন সুশান্ত? পুলিশ এই প্রশ্নের উত্তরের জন্য ইতোমধ্যেই সুশান্তের পরিবার-ঘনিষ্ঠ বন্ধুদের জিজ্ঞা’সাবাদ শুরু করেছে। শনিবার পর্যন্ত মুম্বাই পুলিশ প্রায় ২৫ জনের বয়ান রেকর্ড করেছে।

তালিকায় রয়েছেন সুশান্তের বাবা, দিদি, অভিনেত্রী ও প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তী। তবে আচ’মকাই নতুন করে এবার সন্দে’হের তালিকায় উঠে এলো সুশান্তের খুবই প্রিয় বন্ধু সন্দীপ সিংয়ের নাম। পেশায় প্রযোজক-পরিচালক সন্দীপের সঙ্গে সুশান্তের মেলামেশা কেরিয়ারের একেবারে শুরু থেকে। টেলিভিশনে কাজের সময় লোখন্ডওয়ালাতে একটি ফ্ল্যাটে তার সঙ্গেও থাকতেন সন্দীপ সিং ও অঙ্কিতা লোখন্ডে। সন্দীপের সঙ্গে ছবি তৈরিরও পরিক’ল্পনা ছিল সুশান্তের।

বন্ধুর মৃত্যুর পরই ছবির কথা, প্রযোজক সুশান্ত ও ছবির পোস্টার প্রকাশ করেছেন সন্দীপ। ছবির নাম ‘বন্দে ভারতম’। তবে সুশান্তের পরিবারের তরফে সম্প্রতি মুম্বাই পুলিশের কাছে আর্জি জানানো হয়েছে যে, সন্দীপ সিংকে জে’রা করার। তাদের অ’ভিযো’গ, মৃত্যুর পর সুশান্তের ইনস্টাগ্রাম পোস্ট ডিলিট করেছেন সন্দীপ। সুশান্তের পরিবারের ঘনি’ষ্ঠ বন্ধু নিলোৎপল মুম্বাই পুলিশকে চিঠি লিখে এই আবেদন করেছেন।

চিঠিতে লেখা হয়েছে, বিগত কয়েকদিন ধ’রে ইন্ডাস্ট্রির যাদের বিরু’দ্ধে আ’ঙুল উঠছে তাদের ক্লি’নচিট দেওয়ার জন্যই সন্দীপ পোস্ট ডিলিট করেছেন। যখন পুলিশের তদ’ন্ত চলছে তখন কেন সন্দীপ সুশান্তের পোস্ট ডি’লিট করলেন? মনে করা হচ্ছে, ইন্ডাস্ট্রির কোনও প্রভা’বশালীর চা’পে এই কাজ করছেন সন্দীপ। বলিউডে টিকে থাকা এবং নিজের নামের জন্যই এমন ষ’ড়য’ন্ত্র করছেন সুশান্তের এত কাছের বন্ধু! প্রশ্ন উঠছে।
চিঠিতে মুম্বাই পুলিশের কাছে আবেদন করা হয়েছে সন্দীপের ফোন তদ’ন্ত করে দেখা হোক যে কোনও ভাবে সুশান্তের সোশ্যাল মিডিয়ায় তার ফোন থেকে অ্যা’কসেস ছিল কিনা। সুশান্তের মৃত্যুর পর সন্দীপের কল রেকর্ডসও খতিয়ে দেখার অনুরোধ করেছে পরিবার।

গত ২৫ জুন বিজেপি নেত্রী ও প্রবীণ অভিনেত্রী রূপা গঙ্গোপাধ্যায় অ’ভিযো’গ তুলেছিলেন যে, মৃত্যুর পরও সুশান্তের ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইল কেউ চালাচ্ছে। সোশ্যাল মিডিয়া থেকে তার কোনও পোস্ট ডিলিট করা মানে তথ্যপ্রমাণ ন’ষ্ট করার সামিল বলে দাবি রূপার। সুশান্তের মৃত্যুতে সিবিআই তদ’ন্ত দাবি করেছেন তিনি। একই দাবি করেছেন বাবুল সুপ্রিয়ও।

অন্যদিকে, মুম্বাই পুলিশের দাবি সুশান্তের মৃত্যুর আগে তার প্রোফাইল থেকে বেশ কয়েকটি ট্যুইট ডি’লিট করা হয়েছে। সেগুলি নিয়ে তথ্য জানতে চেয়েছেন তারা। সুশান্তের শেষ ট্যুইট রয়েছে গত বছরের ২৭ ডিসেম্বর। পাশাপাশি ২০০৭ থেকে ২০২০-র মধ্যে সুশান্তের জীবন ও তার চরিত্র-মনের পরিবর্তন সম্পর্কে জানতে চেয়েছে পুলিশ। সে কারণেই বিভিন্ন ঘনি’ষ্ঠদের সঙ্গে কথা বলছেন তদ’ন্তকারীরা। সূত্র : ইন্ডিয়া টাইমস

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*